শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১
শিরোনাম
মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের পোস্টার এলাকাজুড়ে টানানো হবে: ওসি মশিউর রুপগঞ্জের কায়েতপাড়ায় বালু ভরাটের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ফতুল্লায় চাঁদ নীট কম্পোজিট ইউনিট টু’র গ্যাস বিলের দুই কোটি টাকা কার পকেটে ? মুক্তিযোদ্ধারা দেশের সূর্য সন্তান-তানভীর আহমেদ টিটু বেনাপোল বন্দরে ভূয়া কার্ডধারী ও ছবি স্টুডিও’র সুমনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা নবগঠিত ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ এর পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ের বস্তলে অবৈধভাবে ভ্রাম্যমান সিএনজি স্টেশন বসিয়ে রমরমা ব্যবসা ফতুল্লায় মাদক বিক্রেতার বাড়িতে অভিযানে হেরোইন উদ্ধার গোগনগর ইউপিতে সঞ্চয়কৃত অর্থ ফেরত প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা

বক্তাবলীতে মজিবর হত্যা মামলায় গ্রেফতার হয়নি কোন আসামী!

ডেস্ক
  • প্রকাশিত : সোমবার, ১১ জানুয়ারি, ২০২১

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলী ইউনিয়নের চরবয়রাগাদী গ্রামের বিশিষ্ট সমাজসেবক মজিবর খন্দকার হত্যা মামলার কোন আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ।

উল্টো ফতুল্লা মডেল থানায় নিহত মজিবর সহ ৭ জনের নাম উলেলখ করে খুনী কবির হোসেনের স্ত্রী বর্ষা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এতে করে চরবয়রাগাদী গ্রামে উক্তেজনা বিরাজ করছে।

কবির বাহিনীর হামলায় মজিবর খন্দকার দীর্ঘ ৭ দিন ধানমন্ডি জেনারেল ও কিডনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মৃত্যুবরন করেন।

এর আগে ১৬ ডিসেম্বর সন্ত্রাসী কবির ও নাসিরউদ্দিন বাহিনীর হামলায় গুরুতর জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মজিবর খন্দকার। ২৩ ডিসেম্বর সকালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মজিবর খন্দকার মারা যান। এর আগে গত ১৮ ডিসেম্বর মৃত মজিবর খন্দকারের পুত্র মোঃ সবুজ বাদী হয়ে খুনি কবির হোসেন, নাসিরউদ্দিন,আবুল হোসেন,মোঃ জাকির,মোঃ আমানউল্লাহ, সৈয়দ রিফাত,মোঃ মোকসেদুল,মোঃ ফয়সাল,মোঃ দেলোয়ার, মোঃ মহাসিন,মোহাম্মদ আলী ও মোঃ আফজলকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং -৩৫ ধারা-১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩০৭/৩৭৯/৫০৬/১১৪ ধারা।

মামলা দায়ের করার ২৩ দিন অতিবাহিত হলেও সবুজের মামলার কোন আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

অপর দিকে খুনি চক্র হত্যা মামলা নষ্ট করার জন্য উল্টো খুনির স্ত্রী বর্ষা বেগম বাদী হয়ে আদালতে পিটিশন মামলা নং-২৭৪/২০ দায়ের করেন। ফলে আদালতের নির্দেশনায় গত ২২/১২/২০২০ ইং তারিখ ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ মামলা গ্রহন করেন যার নং ৫০।

মামলায় বর্ষা বেগম আসামী করেন সবুজ,স্বপন,সাগর,দৌলত,নিহত মজিবর,ইউনুস খন্দকার ও শাওনকে।মজার ব্যাপার হলো এই মামলায় মজিবর সহ সবার বিরুদ্ধে আদালত ওয়ারেন্ট জারী করেছেন। ফলে নিহত মজিবর হত্যা মামলার বাদী সহ সকলে পলাতক রয়েছে।

ফলে মজিবর খন্দকার হত্যা মামলার প্রধান আসামী খুনি কবিরের স্ত্রী বর্ষা বেগম সহ অন্যান্য আসামীরা ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন হত্যাকান্ডে শিকার মজিবর খন্দকারের পরিবারের সদস্যরা।

খুনি কবির হোসেন তার স্ত্রী বর্ষা বেগম কে দিয়ে মজিবর হত্যা মামলা ভিন্নখাতে নিতে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের করে এলাকায় ফিরতে নানান কৌশল গ্রহন করছে।পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে এলাকায় অবস্থান নিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ফলে এলাকায় যে কোন বড় ধরনের অঘটন ঘটে যেতে পারে বলে শংকা প্রকাশ করেন সচেতন এলাকাবাসী।

অপর দিকে খুনি কবির হোসেনের পরিবার এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী,সন্ত্রাসী ও চাদাঁবাজ হিসেবে পরিচিত। এদের অত্যাচারে এলাকার সাধারণ মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছে। ভয়ে কেউ কিছু বলতে সাহস পেতনা।

অবিলম্বে খুনি কবির হোসেন, নাসিরউদ্দিন,আবুল হোসেন সহ সকল আসামীদের গ্রেফতার করতে আইন শৃংখলা বাহিনীর প্রতি জোর দাবী জানান নিহত মজিবর খন্দকারের পরিবারের সদস্য বৃন্দ।




শেয়ার

আরও পড়ুন




© All rights reserved © 2020 UjjibitoBD
%d bloggers like this: