শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১
শিরোনাম
মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের পোস্টার এলাকাজুড়ে টানানো হবে: ওসি মশিউর রুপগঞ্জের কায়েতপাড়ায় বালু ভরাটের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ফতুল্লায় চাঁদ নীট কম্পোজিট ইউনিট টু’র গ্যাস বিলের দুই কোটি টাকা কার পকেটে ? মুক্তিযোদ্ধারা দেশের সূর্য সন্তান-তানভীর আহমেদ টিটু বেনাপোল বন্দরে ভূয়া কার্ডধারী ও ছবি স্টুডিও’র সুমনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা নবগঠিত ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ এর পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ের বস্তলে অবৈধভাবে ভ্রাম্যমান সিএনজি স্টেশন বসিয়ে রমরমা ব্যবসা ফতুল্লায় মাদক বিক্রেতার বাড়িতে অভিযানে হেরোইন উদ্ধার গোগনগর ইউপিতে সঞ্চয়কৃত অর্থ ফেরত প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা

ফতুল্লা রেলস্টেশন এলাকায় মাদক এখন প্রকাশ্যে

ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২১

ফতুল্লা রেলষ্টেশন এখন প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি ও সেবন করা হচ্ছে । মাদক প্রতিরোধে পুলিশ-প্রশাসনের উদ্যোগে মাঝে মধ্যে মাদক বিরোধী সভা-সমাবেশ করলেও এতে হচ্ছে না কোন লাভ। পুলিশ-প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে চলছে মাদকের রমরমা ব্যবসা। হাত বাড়ালেই মিলছে নানা ধরণের মাদকদ্রব্য। এক সময় শুধু গাজার রাজত্ব ছিলো এখানে। গাঁজার পাশাপাশি এখন ভয়ঙ্কর মাদক হেরোইন ও ইয়াবার রাজত্ব চলছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন জনপ্রতিনিধি বলেন, থানায় ওপেন হাউজ ডে মাদক প্রতিরোধ নিয়ে সবাই ভাল ভাল কথা বলে দায় এড়িয়ে যায়। তবে বাস্তবে এর কোন ফল পাওয়া যায় না। ফতুল্লায় এখন প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করা হচ্ছে। মাদক নিয়ন্ত্রণে প্রসাশন উদ্যোগ নিলেও কোন কাজ হচ্ছে না। এভাবে চলতে থাকলে মাদকের বিস্তার কমানো যাবে না। আর জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর মাঝে মাঝে এসে দায় এড়িয়ে যায়।

এক মুদি ব্যবসায়ী বলেন,মাদক ব্যবসায়ীদের ধরন দেখে বুঝা যায় দেশে আইনশৃঙ্খলা বলতে কিছুই নেই। পুলিশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আসেই না এলাকায় আর আসলে তাদের ধরার চেষ্টা ও করে না।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, একজন মাদক ব্যবসায়ী আটক করা হলে অনেকে তদবির শুরু করে। পুলিশ-প্রশাসনের বিরুদ্ধে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে নালিশ করা হয়। তো কিভাবে মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই করবে পুলিশ।

জানা গেছে, এখন -ইয়াবা ও গাঁজা পাশাপাশি হরদমে চলছে মরণ নেশা হেরোইন। যা প্রকাশ্যে বিক্রি করছে ব্যবসায়ীরা। ইয়াবার ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে ভাল ভাল পরিবারের সদস্যরা। তাই স্থানীয়রাও ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন না। এসব মাদক ব্যবসায়ীরা সবাই অল্প বয়সী। এরা যে মাদকের ব্যবসায় জড়িত তা হঠাৎ কেউ বিশ্বাস করবে না।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক অভিভাবক অভিযোগ করে বলেন, মাদকের ভয়ানক থাবায় ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে আমাদের আল্প বয়সী ছেলেরা। ধ্বংস হচ্ছে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরাও। তাদের মতে নতুন নতুন মাদক ব্যবসায়ী হওয়ার কারণে বাড়ছে মাদক সেনবকারীর সংখ্যাও। এসব মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক তুলে দিচ্ছে উঠতি বয়সী যুবকদের হাতে। যার মধ্যে বেশিভাগ স্কুল-কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থীরা। মা-বাবার চোঁখের সামনে মাদকাসক্ত হচ্ছে যুবক ছেলে। এ কষ্ট কিভাবে মেনে নিবে অভিভাবকরা। তাই মাদকাসক্ত সন্তানদের চরম দু:শ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে অভিভাবকরা। যুব সমাজকে রক্ষা করতে হলে এসব মাদক ব্যবসায়ীদের খুজে বের করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

ফতুল্লা রেলষ্টেশন এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীরা হলো, ১৪ মামলার আসামী সোরহাবের হান্ডেড্র বাবুর হেরোইনের ব্যবসা তার সেলস্যম্যান হল,সোহেল,শুভ মোকলেছ,সালমান ও বিথি। গাঁজা নারী ব্যবসায়ী আল্পনা তার সেলসম্যান হল সেলিমও সেন্টু। ফতুল্লা রেষ্টেশনের বাজার জামে মসজিদের পশ্চিম পাশে আল ইসলামের ছেলে আল-আমিনের হেরোইনের ব্যবসা তার সেলস্যান হল,বাইল্লা সুমন,সুজন,হিমেল,রাব্বি।চেয়ারম্যান বাড়ির নাসির শেট।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আসলাম হোসেন বলেন,মাদকের বিরুদ্ধে সর্বদা সোচ্চার রয়েছে। আমি অনতিবিলম্বে উক্ত এলাকায় মাদক বিক্রি বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।




শেয়ার

আরও পড়ুন




© All rights reserved © 2020 UjjibitoBD
%d bloggers like this: