শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১
শিরোনাম
মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদের পোস্টার এলাকাজুড়ে টানানো হবে: ওসি মশিউর রুপগঞ্জের কায়েতপাড়ায় বালু ভরাটের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ফতুল্লায় চাঁদ নীট কম্পোজিট ইউনিট টু’র গ্যাস বিলের দুই কোটি টাকা কার পকেটে ? মুক্তিযোদ্ধারা দেশের সূর্য সন্তান-তানভীর আহমেদ টিটু বেনাপোল বন্দরে ভূয়া কার্ডধারী ও ছবি স্টুডিও’র সুমনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা নবগঠিত ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ এর পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ের বস্তলে অবৈধভাবে ভ্রাম্যমান সিএনজি স্টেশন বসিয়ে রমরমা ব্যবসা ফতুল্লায় মাদক বিক্রেতার বাড়িতে অভিযানে হেরোইন উদ্ধার গোগনগর ইউপিতে সঞ্চয়কৃত অর্থ ফেরত প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা

ইসরায়েলের সঙ্গে বন্ধুত্ব করতে ইন্দোনেশিয়াকে প্রলোভন ট্রাম্পের

ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

মধ্যপ্রাচ্যের ইহুদিবাদী দখলদার রাষ্ট্র ইসরায়েলের সঙ্গে বন্ধুত্ব করার জন্য দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়াকে বড় ধরনের প্রলোভন দেখিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। নিরীহ ফিলিস্তিনিদের বিপক্ষে গিয়ে ইসরায়েলি ইহুদিদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়তে রাজি হলেই ট্রাম্প প্রশাসনের কাছ থেকে শত কোটি ডলার পাবে বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠীর দেশটি। এর মধ্যস্থতায় নিয়োজিত এক মার্কিন কর্মকর্তা নিজেই সম্প্রতি চোখ কপালে তোলা এ তথ্য জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশে বিনিয়োগ বিষয়ক সরকারি সংস্থা ডিএফসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যাডাম বোয়েলার বলেছেন, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক গড়লেই তার সংস্থা থেকে ইন্দোনেশিয়াকে দ্বিগুণ অর্থ সহায়তা দেওয়া হতে পারে। বর্তমানে মুসলিম দেশটিকে ১০০ কোটি ডলার দেওয়া হচ্ছে। অর্থাৎ ইসরায়েলিদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়লে তারা যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ২০০ কোটি ডলার বা তারও বেশি অর্থ সহায়তা পেতে পারে।

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) জেরুজালেমে বসে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান বোয়েলার।তিনি বলেছিলেন, এ বিষয়ে আমরা তাদের (ইন্দোনেশিয়া) সঙ্গে কথা বলছি। তারা যদি ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক গড়তে প্রস্তুত থাকে, তাহলে আমরা তাদের স্বাভাবিকভাবে যে অর্থ সহায়তা দেই, খুশি মনে তার চেয়েও বেশি দেব। আরও পড়ুন : নামাজে যাওয়ার পথে আফগান সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা এক্ষেত্রে ইন্দোনেশিয়ার জন্য ডিএফসির অর্থ বরাদ্দ ১০০ বা ২০০ কোটি ডলার বাড়লেও অবাক হবেন না বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির প্রধান কর্মকর্তা।

গত কয়েক মাসে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, সুদান ও মরক্কোর মতো মুসলিম দেশগুলো। মার্কিন এবং ইসরায়েলি নেতাদের আশা, আগামী কিছুদিনের মধ্যে আরও কয়েকটি মুসলিম দেশ একই পথ অনুসরণ করবে। যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, সৌদি আরব এবং ওমান শিগগিরই ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করবে। তবে বোয়েলার জানিয়েছেন, এ দু’টি দেশে তার সংস্থা থেকে অর্থায়ন সম্ভব নয়। কারণ উচ্চ আয়ের কোনো দেশ সরাসরি বিনিয়োগ নিষিদ্ধ রয়েছে ডিএফসির।

বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা এবং জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা জ্যারেড কুশনারের সঙ্গে একটি প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে ইসরায়েলে রয়েছেন অ্যাডাম বোয়েলার। ট্রাম্পের এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তিনি শিগগিরই মরক্কোয় প্রসপার আফ্রিকার (যুক্তরাষ্ট্র-আফ্রিকা বাণিজ্য বৃদ্ধি কর্মসূচি) উত্তর আফ্রিকা অঞ্চলের প্রথম শাখা উদ্বোধন করবেন। তিনি আরও জানান, ইসরায়েলের হাইফা শহরে অবস্থিত দেশটির বৃহত্তম সমুদ্রবন্দর বিক্রির ঋণ সিন্ডিকেটের অংশ হচ্ছে ডিএফসি। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এবং আমিরাতের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বন্দরটি কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

বোয়েলার জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র অথবা তাদের কোনো মিত্র দেশ এই কেনাবেচায় অংশ নিলে বিষয়টি দেখবে তার সংস্থা। সম্পর্ক স্থাপন চুক্তির অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে আমিরাত-ইসরায়েল-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ৩০০ কোটি ডলারের একটি ত্রিপক্ষীয় তহবিল গড়তে সাহায্য করেছেন অ্যাডাম বোয়েলার। তহবিলটির প্রধান মার্কিন দূতাবাসের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা আরে লাইট স্টোন জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র অন্তত ১০টি সম্ভাব্য চুক্তি নিয়ে কাজ করছে।

সূত্র : আল-জাজিরা




শেয়ার

আরও পড়ুন




© All rights reserved © 2020 UjjibitoBD
%d bloggers like this: